প্রথমবারের মত সৌদির বিচারে বিভাগে ৫৩ নারীর নিয়োগ

প্রথমবারের মত সৌদির বিচারে বিভাগে ৫৩ নারীর নিয়োগ
Spread the love

সৌদিআরব ইসলামিক রাষ্ট্রগুলোর সব থেকে বড় একটা জায়গা। সৌদিতে নারীদের চলাফেরা, শপিং, চাকরী সহ বিভিন্ন কাজে কড়াকড়ি ছিল। তবে এসব থেকে বের হচ্ছে আরব দেশটি।

সৌদিতে এখন ফুটবল খেলা স্টেডিয়ামে বসে দেখতে পারে নারীরা, গাড়ি চালানোর অনুমতি সহ অনেক কিছুই উন্মুক্ত করে দিচ্ছে সৌদি সরকার। এবার একসাথে প্রথমবারের মত ৫৩ জন নারীকে নিয়োগে দেয়া হয়েছে সৌদিআরবের বিচার বিভাগে।

দেশটির বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজ আল সৌদের রাজকীয় এক ফরমানে এ নিয়োগের সিদ্ধান্ত হয়েছে। এ সিদ্ধান্তের ফলে এই প্রথম সৌদির বিচার বিভাগে তদন্ত কর্মকর্তা হিসেবে অন্তত ৫৩ জন নারীকে নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে।

খবর : সৌদি গণমাধ্যম আল আরাবিয়া।

আল আরাবিয়ার খবরে বলা হয়, সৌদি আরবের পাবলিক প্রসিকিউটরের জারি করা এক বিবৃতির মাধ্যমে জানানো হয়, এসব নারী কর্মকর্তাদের বিচার বিভাগে নির্দিষ্ট কিছু মামলার তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হতে পারে।

এদিকে সৌদি আরবের প্রসিকিউটর জেনারেলের মূখ্যপাত্র ডাক্তার মজিদ আল-দেশমানি ৫৩ নারী কর্মকর্তার বিচার বিভাগের নিয়োগের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেছেন, সবমিলিয়ে ১৫৬ জন কর্মকর্তা নিয়োগপ্রাপ্ত হয়েছেন, খুব শিগগির তাদেরকে নিজ নিজ দায়িত্ব অার্পন করা হবে।

এ নিয়োগের ফলে ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের সংস্কার কর্মসূচী ভিশন- ২০৩০ বাস্তবায়নে আরও একধাপ এগিয়ে গেল সৌদি আরব। এর আওতায় নারীদের ব্যাপক স্বাধীনতা নিশ্চিত করতে গত বছর তাদের গাড়ি চালানোর অনুমোদনও দেয়া হয়েছে।

admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *