ধর্ষণ প্রতিরোধী অভিনব পন্থা ‘ নিরাপদ জুতা ‘

ধর্ষণ প্রতিরোধী অভিনব পন্থা ‘ নিরাপদ জুতা ‘
Spread the love

বলা হয়ে থাকে বর্তমানে নারী স্বাধীনতার দুয়ার খুলে গেঋে। আসলেই কি তাই? নারীদের স্বাধীনতা যে হারে বাড়ছে তার থেকে দ্বিগুণ হারে নারী ধর্ষণের হার বেড়ে গেছে। নারীদের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ তাবথ দুনিয়ার সব দেশই। একরকম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন নারীরা।

বিশ্বজুড়ে নারী নিপীড়নের মাত্রা বেড়েছে বহুগুণে। বিশেষ ভারতে নারীদের ওপর যৌন হেনস্তার মাত্রা চরমে পৌঁছেছে। এমন অস্বাভাবিক পরিস্থিতিতে দেশটির নারীদের সুরক্ষায় এক ‘ অভিনব জুতা ‘ উদ্ভাবন করলেন বাপ্পা রায় নামে ভারতের রায়গঞ্জ বিশ্বববিদ্যালয়ের এক কর্মী।

খবর : ইন্ডিায়ান এক্সপ্রেস।

ওই জুতা পরলে যে কোনো বিপদ থেকে নিজেকে সুরক্ষা করতে পারবেন নারীরা। হঠাৎ আক্রমণকারীকেও প্রতিহত করতে পারবেন।

উদ্ভাবক রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিদ্যা বিভাগের বাপ্পী রায় বলেন, এ জুতা পরলে ইভটিজিং, অপহরণ আর আক্রমণের মতো বিপদ থেকে নিজেকে রক্ষা করতে পারবেন নারীরা। অপহৃত হয়ে যাওয়ার মুহূর্তে স্থানীয় নিরাপত্তা রক্ষা বাহিনীকে সাথে সাথে তথ্য সরবরাহ করতে পারবে। বৈদ্যুতিক শক দিয়ে আক্রমণকারীকে ধাক্কা দিতেও পারবে জুতাটি।

বাপ্পা রায় এ জুতার নাম দিয়েছেন — ” সেফটি সু “ তিনি বলেন, এই সেফটি সু টিতে রয়েছে বিশেষায়িত টেকনোলজি। এখানে জিপিএস সিস্টেম জুড়ে দেয়া হয়েছে। এর মাধ্যমে সহজেই লোকেশন ট্র‍্যাকিং করা যাবে। এতে থাকবে ৬০০ ভোল্টের এসি কারেন্ট। এই বৈদ্যুতিক ক্ষমতা দিয়ে অনায়াসে আক্রমণকারীকে কুপোকাত করা যাবে।

এ ছাড়া জুতোয় এক ধরণের সেন্সর লাগানো থাকবে, যা রাস্তায় চলায় সময় কোনো বাধাবিপত্তি থাকলে বিশেষ সিগন্যাল দেবে।

এ সেফটি জুতা খুব শিগগিরি ভারতের বাজারে আসছে বলে জানিয়েছেন বাপ্পা রায়। তিনি আশা করেন জুতাটি সারা পৃথিবীতে গ্রহণযোগ্যতা পাবে। ভারতের জনপ্রিয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়ান টাইমসকে তিনি বলেন, সমসাময়িক পরিস্থিতি বিবেচনায় নারীদের জন্য এই জুতা খুব কার্যকরী। এর দামও হাতের নাগালে থাকবে।

উদ্ভাবক বাপ্পা রায় বলেন, এর ভেতরে যে সার্কিটটি রয়েছে তা তৈরিতে খরছ হয়েছে মাত্র ১৪০ টাকা। সার্কিটের ভিতরে রয়েছে ডায়োড, ট্রানজিষ্টর, ট্রান্সফরমার ইত্যাদি। এর ভেতরের লিথিয়াম ব্যাটারী চার্জের জন্য আলাদা সময় দিতে হবে না। হাঁটতে হাঁটতেই ব্যাটারি চার্জ হবে।

সাড়া ফেললে পরে এই সেফটি সুতে চাহিদা অনুযায়ী নতুন নতুন ফিচার যোগ করার পরিকল্পনা রয়েছে বলেও জানান আবিষ্কারক বাপ্পা রায়। জানা গেছে, শিগগিরই যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিআরডিও সেন্টারে এই অভিনব জুতার মোড়ক উন্মোচন করা হবে।

admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *