এইচএসসি পরীক্ষা হতে পারে বিষয় কমিয়ে : শিক্ষামন্ত্রী

এইচএসসি পরীক্ষা হতে পারে বিষয় কমিয়ে : শিক্ষামন্ত্রী
Spread the love

করোনাভাইরাসের মহামারীতে জনজীবন বিপন্ন। শিক্ষার্থীরা একটা বিশাল সমস্যায় পড়ে গেছেন সব থেকে বেশি। যদি সব ঠিক থাকত তাহলে এতদিনে এইচএসসি পরীক্ষা শেষ হয়ে অনার্সের ক্লাস শুরু হয়ে যেত। তবে সবকিছু উলটপালট করে দিলে করোনা মহামারী।

যেখানে দেশে সংক্রমণের হার ২১ শতাংশের উপর সেখানে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া এক রকম স্বপ্নই। করোনাভাইরাসের কারণে অনিশ্চিত হয়ে পড়া চলতি বছরের উচ্চমাধ্যমিক (এইচএসসি) পরীক্ষার বিষয় কমিয়ে কম সময়ে তা নেওয়ার কথা ভাবা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি।

গত শনিবার এক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে এ কথা বলেন তিনি। শিক্ষাবিষয়ক সাংবাদিকদের একাংশের উদ্যোগে আয়োজিত ভার্চ্যুয়াল এই অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন গণসাক্ষরতা অভিযানের নির্বাহী পরিচালক রাশেদা কে চৌধুরী, ব্র‍্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের ইমেরেটাস অধ্যাপক মনজুর আহমদ প্রমুখ।

করোনার কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের নিয়মিত কার্যক্রম বন্ধ থাকায় চলতি শিক্ষাবর্ষ ডিসেম্বর থেকে বাড়িয়ে আগামী ফেব্রুয়ারি বা মার্চ পর্যন্ত করার ইঙ্গিত দেন শিক্ষামন্ত্রী।

তিনি বলেন, এ মুহূর্তে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার কোন অবস্থা নেই। অবস্থা পর্যবেক্ষণ করতে হবে। খুলতে দেরি হলে শিক্ষাবর্ষ ডিসেম্বরের মধ্যই সীমাবদ্ধ রাখা হবে, নাকি আগামী বছরের দুই-তিন মাস যুক্ত করা হবে তা ভাবা হচ্ছে।

করোনার সংক্রমণের কারণে গত ১৮ মার্চ থেকে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। ইতিমধ্যে এইচএসসি পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। এ পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল গত এপ্রিলের শুরুতে। ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের একজন উচ্চপর্যায়ের কর্মকর্তা বলেন, সংক্রমণ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের আসার পর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুললে এর অন্তত ১৫ দিন পর এইচএসসি পরীক্ষা শুরু করা হবে।

আগামী ৬ আগস্ট পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের ঘোষণা আছে। তবে সরকারের পক্ষ থেকে ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছে সংক্রমণ পরিস্থিতি অব্যাহত থাকলে এই বন্ধ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত গড়াতে পারে।

admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *