বাবার চিকিৎসা না করে পাবজি খেলে ১৬ লাখ টাকা ওড়াল এক কিশোর

বাবার চিকিৎসা না করে পাবজি খেলে ১৬ লাখ টাকা ওড়াল এক কিশোর
Spread the love

তথ্য-প্রযুক্তির এই দুনিয়ায় অনলাইনে গেম খেলা যেন একরকম নেশা হয়ে দাঁড়িয়েছে তরণ-তরণীদের। শুধু তরুণ-তরুণী নয় বিভিন্ন বয়সের মানুষ এসব গেম খেলায় পড়ে থাকে ঘন্টার পর ঘন্টা। বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন লোভনীয় অনালইন গেমে আসক্ত হয়ে সময়ের পাশাপাশি পড়ালেখার যেমন ক্ষতি হচ্ছে সাথে অনেকে কাড়ি কাড়ি টাকাও উড়াচ্ছে। তেমনি একটা ঘটনা গঠে গেল ভারতে।

পাবজি গেমের নেশায় বুঁদ হয়ে ভারতের পাঞ্চাবের এক কিশোর তার বাবার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে ১৬ লাখ টাকা খরচ করে ফেলছে। যেই টাকা তার বাবা উনার চিকিৎসার জন্য রেখেছিলেন।

পাবজির বিভিন্ন পেইড অ্যাপ্লিকেশন কিনতে গিয়ে এবং গেম আপগ্রেড করতে গিয়ে ওই বিপুল অর্থ উড়িয়ে দেয় সে। ট্রিবিউন ইন্ডিয়ার বরাত দিয়ে এনডিটিভি এই খবর প্রকাশ করেছে।

জানা গেছে, ওই টাকা তার বাবা চিকিৎসা খাতে ব্যয়ের জন্য সারা জীবন ধরে সঞ্চয় করেছিলেন। পাবজির নেশায় বাবার মাথার ঘাম পায়ে ফেলে অর্জন করা সেই টাকা বিনা চিন্তাভাবনায় নষ্ট করেছে কিশোরটি। ওই কিশোরের বাবা একজন সরকারী চাকুরিজীবি। তিনি ভবিষ্যতে চিকিৎসার জন্য ওই টাকা জমিয়ে রেখে ছিলেন। কিন্তু তিনি টেরই পাননি যে তার ছেলে এমন কাজ করছে, কারণ কর্মসূত্রে অন্য জায়গায় ছিলেন তিনি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই ভদ্রলোক বলেছেন, আমার ছেলে তার মায়ের মোবাইল ফোন থেকে ওই সমস্ত লেনদেন করত এবং তারপর অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা খরচ সংক্রান্ত যে মেসেজটি আসতো সেটি সঙ্গে সঙ্গে ডিলিট করে দিত। ফলে আমরা কিছুই বুঝতে পারিনি।

বাবা-মা ভাবতেন ওই কিশোর অনলাইন পড়াশোনার জন্য রাতদিন মোবাইল নিয়ে বসে আছে। কিন্তু এই রকম একটা কাজ করে বসবে তার আন্দাজ কোনোভাবেই করতে পারেননি তারা। যখন টের পেলেন তখন সর্বনাশ হয়ে গেছে।

এদিকে সেন্সর টাওয়ার নামে একটি সংস্থার রিপোর্টে বলা হয়েছে, করোনাকালে ঘরবন্দি থাকার কারণে পাবজি গেম খেলার প্রবণতা আরো বেড়ে গেছে। ফলে বিশ্বে এই মহামরীর সময়েও ভালোই আয় করছে পাবজি মোবাইল গেম তৈরির সংস্থাটি

admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *