ব্যথানাশক ট্যবলেট ‘টাপেন্টাডল’ মাদকদ্রব্য হিসেবে চিহ্নত করল সরকার

ব্যথানাশক ট্যবলেট ‘টাপেন্টাডল’ মাদকদ্রব্য হিসেবে চিহ্নত করল সরকার
Spread the love

মাদকসেবীরা মাদককের বিকল্প হিসেবে বিভিন্ন সময়ে কিছু কিছু ওষুধকে ব্যবহার করে। বর্তমান পৃথিবীতে এই রকম ঘটনা খুব বেশিই চোখে পড়তেছে। মাদকসেবীরা এই রকম ওষুধ দিয়ে নিজেদের নেশার কাজ চালিয়ে নেয়। এবার সেই মাদকদ্রব্যের তালিকায় যোগ হল আরো একটি ওষুধ।

ব্যথানাশক হিসেবে ব্যবহৃত টাপেন্টাডল জাতীয় ওষুধকে ‘মাদকদ্রব্য’ হিসেবে ঘোষণা করেছে সরকার। মাদকসেবীরা এই জাতীয় ওষুধকে মাদকের বিকল্প হিসেবে ব্যবহার করায় একে “খ” শ্রেণীর মাদকদ্রব্য হিসেবে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের তফশিলে যুক্ত করে ৮ জুলাই গেজেট প্রকাশ করেছে সরকার।

সেখানে বলা হয়েছে, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের প্রস্তাবমতে ঔষধ প্রশাসন অধিদফতর এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মাসী বিভাগের সুপারিশের ভিত্তিতে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের ৬৫ ধারা অনুযায়ী ওই আইনে ‘ খ ‘ শ্রেণির মাদকদ্রব্য হিসেবে টাপেন্টাডলকে তফসিলভুক্ত করা হল।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের ৬৫ ধারায় বলা আছে, সরকার সরকারি গেজেটে প্রজ্ঞাপন জারি করে তফসিল সংশোধন করে কোনো মাদকদ্রব্যের নাম অন্তর্ভুক্ত বা বাদ দিতে পারবে। ধরণ ও ব্যাপকতার উপর ভিত্তি করে বিভিন্ন ধরণের মাদককে ‘ক’ ‘খ’ এবং ‘গ’ শ্রেণিতে ভাগ করে সেগুলোকে সময়ে সময়ে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের তফসিলভুক্ত করা হয়।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন অনুযায়ী, এ আইনের তফসিলে উল্লেখিত কোনো দ্রব্য বা মাদকদ্রব্যের সঙ্গে অন্য যে কোনো দ্রব্য একীভূত, মিশ্রিত কিংবা দ্রবীভূত থাকলে সেসব দ্রব্যকেও মাদকদ্রব্য হিসেবে গণ্য করা হয়।

বাংলাদেশে গ্লোব ফার্মাসিউটিক্যালস, এসকেএফ বাংলাদেশ লিমিটেড, অফসোনিন ফার্মা লিমিটেড এবং স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড বিভিন্ন নামের এই ট্যাবলেট উৎপাদন করে। কোম্পানিভেদে একেকটি ট্যাবলেটের দাম ১২ টাকা থেকে ১৭ টাকা।

দাম কম হওয়ায় এবং সহজে পাওয়া যায় বলে এ ধরণের ব্যথানাশক ট্যাবলেট নেশার সামগ্রী হিসেবে ব্যবহারের খবর গত দুই- তিন বছর ধরে সংবাদ মাধ্যমে আসছিল।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের একজন কর্মকর্তা জানান, টাপেন্টাডলকে মাদকদ্রব্য হিসেবে ঘোষণা করায় এসব ট্যাবলেট উৎপাদন না করতে কোম্পানিগুলোকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে কোনো কোনো কোম্পানি এই ট্যাবলেটের উৎপাদন বন্ধ করে দিয়েছে।

admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *