২০২৩ সালে বাংলাদেশ উৎক্ষেপণ করবে স্যাটেলাইট -২

পৃথিবীর যত উন্নত এবং উন্নয়নশীল দেশ রয়েছে তাঁদের বেশির ভাগের নিজস্ব স্যাটেলাইট রয়েছে।বর্তমান দুনিয়ায় তথ্য ও প্রযুক্তির দিক থেকে যে দেশ যত উন্নত সেই দেশ তত এগিয়ে।

আর প্রযুক্তির একটি বড় সিঁড়ি হল নিজ নিজ দেশের স্যাটেলাইট দিয়ে মহাকাশে জায়গা করে নেওয়া।বাংলাদেশ ও মহাকাশে তাঁর নিজের জায়গা করে নিয়েছে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ মহাকশে সফল ভাবে উড়িয়ে।পৃথিবীর ইতিহাসে ৫৭ তম দেশ হিসেবে মহাকাশে স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করে স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণকারী দেশের তালিকায় নিজের জায়গা করে নিয়েছে বাংলাদেশ।

২০১৮ সালের ১১মে যুক্তরাষ্ট্রের কেনেডি স্পেস সেন্টার থেকে লাল সবুজ পতাকা বাহী বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট -১ সফল ভাবে উৎক্ষেপণ করা হয়।এরই ধরাবাহিকতায় বাংলাদেশ সরকার ঘোষণা দিয়েছে ২০২৩ সালেই স্যাটেলাইট -২ উৎক্ষেপণ করা হবে এর জন্য যাবতীয় প্রস্তুতি শুরু হয়ে গেছে এখন থেকেই। স্যাটেলাইট -২ উৎক্ষেপণের জন্য বিশাল কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।

স্যাটেলাইট -২ কি ধরণের হবে এবং এটার দ্বারা কি কি সেবা জনগণকে দেওয়া হবে তা নির্ধারণের জন্য স্টেকহুল্ডারদের সাথে আলোচনা শুরু হয়ে গেছে। স্যাটেলাইট -২ টি সফল ভাবে যাতে উৎক্ষেপণ করা যায় এর জন্য আন্তর্জাতিক পরামার্শক ও নিয়োগের কাজ শুরু করে দিয়েছে সরকার।উল্লেখ্য যে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট -১ হল বাংলাদেশের প্রথম ভূমিস্থ যোগাযোগ উপগ্রহ।

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাই এর ফুটপ্রিন্ট বা কাভারেজ বিস্তৃত ইন্দোনেশিয়া থেকে তাজিকিস্তান পর্যন্ত। এরই মধ্যে বাংদেশের সব সরকারী এবং বেসরকারী টেলিভিশন এর সম্প্রসার কার্যক্ষম হচ্ছে এটার মাধ্যমে।ইতিমধ্যে বাংলাদেশ বিমান বাহিনী, বাংলাদেশ নৌ বাহিনী এবং বর্ডারগার্ড বাংলাদেশ যুক্ত হয়েছে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট -১ এর সাথে।তাই আশা করা যাচ্ছে স্যাটেলাইট -২ এর মাধ্যমে বাংলাদেশ তথ্য প্রযুক্তি ক্ষেত্রে এক নতুন দিকন্ত্বের দ্বার উন্মোচন করবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *