সৌদি আরব থেকে ইতিহাস গড়ে আসতে পারে সব থেকে বড় বিনিয়োগ।

ইতিমধ্যে বাংলাদেশ সরকারের কাছে সৌদি আরব জানতে চেয়েছে যে বিনিয়োগের জন্য কি কি সুযোগ আছে এবং মুলধনের নিরাপত্তার জন্য কি রকম সুযোগ রয়েছে।

গেল বছর ২০১৯ সালে সৌদি আরব এর সাথে $৩৫বিলিয়ন ডলার এর ৮টি প্রকল্প নিয়ে আলোচনা হয়েছে। তবে এই বছর বাংলাদেশ আশা করছে যে প্রায় $৫০ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করবে সৌদি সরকার। বাংলাদেশী টাকায় গিয়ে দাঁড়ায় ৪ লক্ষ ২৫ হাজার কোটি টাকা। এরই মধ্যে বাংলাদেশ সরকারের কাছে ১০০০ একর জমি চেয়েছে সৌদিআরব এর আল-বাওয়ানি কোম্পানী যেখানে তারা সকল ধরণের অবকাঠামোগত উন্নয়ন ও শিল্প কারখানা গড়ে তুলবে। ইতিমধ্যে MOU ও স্বাক্ষর হয়ে গেছে। এর আগে ও $৩৮ বিলিয়ন ডলারের ৮টি উন্নয়ন প্রকল্পে বিনিয়োগ ঢেলেছিল সৌদিআরব।

সুখবর হল বিদ্যুৎখাতে ও সৌদি থেকে বিরাট অংকের বিনিয়োগ আসতেছে। বাংলাদেশ পাওয়ার ডেভেলপমেন্ট বোর্ড ACWA এবং সৌদিআরবেরর কোম্পানী আরামকোর সাথে এলএনজি ভিত্তিক ৩,৬০০ মেগাওয়াটের প্লান্ট স্থাপনের চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। আরমকোর এই এলএনজি সাপ্লাই দিবে $৩ বিলিয়ন ডলারের চুক্তিতে। মহেশখালী দ্বীপে এই প্লান্টটি গড়ে উঠবে।তাই আশা করাই যায় বেশ বড় অংকের বিনিয়োগ পেতে যাচ্ছে বাংলাদেশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *